Verification: 604f510ca357bb64

Web design কি এবং web design course কেন শিখবেন ?

Web design কি এবং web design course কেন শিখবেন ? বর্তমান সময়ে এই জিনিসটি জানা কি খুবই জরুরী ? আসলে আপনি যদি কোন কিছু শিখতে বা জানতে চান তাহলে সেটা কিন্তু একদম বেসিক থেকেই জানা বা শিখা উচিত। আর এখনকার এই পোস্টটি মূলত তাদের জন্যই লিখা হয়েছে যারা একেবারে নতুন এবং web design course এ আগ্রহী তাদের জন্য কাজে লাগবে।

Before talking about web design, I think we have to learn about not web, but web browsing. কিন্তু কেন ? তার কারণটা হচ্ছে আমরা যারা নতুন web design শিখা শুরু করি। বিশেষ করে কম্পিউটার সায়েন্স এবং ইঞ্জিনিয়ারিং কিংবা সাধারণ স্কুল কলেজের এর স্টুডেন্টরা। যারা বন্ধু বান্ধবদের দেখে বা ভার্সিটির প্রজেক্ট করার জন্য অথবা ফ্রিল্যান্সিং করে অনেক টাকা আয় করার জন্য। মূলত web design শিখাতো অনেক দূরের কথা তারা ঠিকমতো জানেও না যে ওয়েব ব্রাউজিং কিভাবে করতে হয়।

আরও পড়ুনঃ ফ্রিলেন্সিং এর কাজসমূহ কি কি ও কিভাবে ফ্রিলেন্সিং শুরু করবেন।

তারপরও যদি কোন কারণে তারা web design course এ ভর্তি হয়ে শিখতে শুরু করলেও তারা এও জানে না যে আসলে ওয়েব ডিজাইন জিনিসটা কি ? আর এরই ফলশ্রুতিতে কিছুদিন যাওয়ার পরে দেখা যায় যে, সে শিখার আগ্রহটা হারিয়ে ফেলে এবং বুঝতে পারে ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট সেক্টরটা হয়তো আসলে তার জন্য নয়।

তাই ওয়েব ডিজাইন শিখা শুরু করার আগে আমাদেরকে বুঝতে হবে ওয়েব ডিজাইন জিনিসটা কি। আমি কেন ওয়েব ডিজাইন শিখব এবং শিখে কি লাভ হবে। আপনি প্রথমে এই উত্তরগুলো না জেনেই যদি ওয়েব ডিজাইন শিখতে শুরু করে দেন তাহলে জিনিসটা হবে ড্রাইভিং না জেনে গাড়ি চালানোর মত।

ওয়েব ডিজাইন বলতে মূলত বুঝানো হয় ওয়েব সাইট ডিজাইনকে। এখন বুঝতে হবে ওয়েব সাইট জিনিসটা কি। আপনি এটা না জানলে এখনই আপনার হাতে থাকা মোবাইল অথবা কম্পিউটার এর ইন্টারনেট ব্রাউজার এ গিয়ে সার্চ করুন What is a website? যদিও গুগোল বা মজিলা ব্রাউজার একটি সার্চ ইঞ্জিন। তারপরও এগুলো কিন্তু একেকটি ওয়েবসাইট।

তারপর ব্রাউজারে গিয়ে আপনি সার্চ করলে গুগল থেকে অনেকগুলো রেজাল্ট আপনি দেখতে পাবেন। তার মধ্যে প্রথম যে রেজাল্ট টি আসবে সেটি সম্ভবত উইকিপিডিয়া থেকে আসতে পারে। উইকিপিডিয়া হল মূলত একটি ইনসাইক্লোপিডিয়া। মজার ব্যাপার হচ্ছে এটিও কিন্তু একটি ওয়েবসাইট। এখন আপনি এসব দেখে ও ঘেঁটে মূলত ওয়েবসাইট কি সেই জিনিসটার কিছুটা ধারনা হয়তো পেলেন।

এখন আপনি পুনরায় ইউটিউব ও ফেসবুক ঘুরে আবার এই আর্টিকেলে ফিরে আসবেন। আপনি যদি ফেসবুক ও ইউটিউবে যান তাহলে দেখতে পাবেন যে এগুলো একটি সামাজিক যোগাযোগ ও ভিডিও শেয়ারিং ওয়েব সাইটট। একটি কথা এখানে না বললেই নয়। ওয়েবসাইট মূলত দুই ধরনের হয়ে থাকে। এর একটি হলো স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট এবং অন্যটি হলো ডাইনামিক ওয়েবসাইট।

কিন্তু কোনটা স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট এবং কোনটা ডায়নামিক ওয়েবসাইট সেটা আমরা কিভাবে বুঝব ? এই হিসাবটাও আসলে খুবই সিম্পল। যে সমস্ত ওয়েবসাইট প্রতিটা ইউজার বা ভিজিটরকে একই ধরনের রেজাল্ট বা তথ্য প্রদর্শন করে। অর্থাৎ আমি ভিজিট করলে আমাকে যা দেখাবে এবং আপনি নিজে ভিজিট করলেও আপনাকেও একই রেজাল্ট প্রদর্শন করবে। তাদের তথ্যের কোনো পরিবর্তন হবে না। তাহলে সেই ওয়েবসাইটকে বলা হয় স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট।

আরও পড়ুনঃ ঘরে বসে কিভবে একটি পেসিভ ইনকাম করে অনেক টাকা আয় করবেন

অপরদিকে যে সমস্ত ওয়েবসাইট ইউজারদের উপর বেইজ করে ভিন্ন ভিন্ন রেজাল্ট প্রদর্শন করে সে সমস্ত ওয়েবসাইটকে ডায়নামিক ওয়েবসাইট বলা হয়ে থাকে। যেমন- ফেইসবুক। ফেসবুক হচ্ছে পৃথিবীর সবচেয়ে সহজ ডাইনামিক ওয়েবসাইট গুলোর মধ্যে অন্যতম। আমি যখন আমার ইনফরমেশন দিয়ে এখানে লগইন করব তখন আমার তথ্যগুলোই সেখানে প্রদর্শিত হবে। আবার যখন আপনি নিজে লগইন করবেন তখন আপনার তথ্যগুলোই প্রদর্শন করবে, আপনার ফ্রেন্ডলিস্ট, আপনার নিউজ ফিড দেখাবে। এটাই হলো ডায়নামিক ওয়েবসাইট এর প্রধান বৈশিষ্ট্য।

অন্যভাবে বলতে গেলে স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট এ কোন প্রোগ্রামিং করা থাকে না অর্থাৎ কোন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করা হয় না। এখানে শুধু ডিজাইনের ব্যাপারটাই মুখ্য। কিন্তু ডাইনামিক ওয়েব সাইটগুলোতে ডিজাইনের পাশাপাশি প্রোগ্রামিং এরও একটা ব্যাপার থাকে। যেখানে বিভিন্ন ওয়েব প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ যেমন এইচটিএমএল, জাভা, পিএইচপি, এইচপি ব্যবহার করে একটি প্রোগ্রাম তৈরী করা থাকে। যেটা ইউজার ভেদে ভিন্ন ভিন্নভাবে উপস্থাপিত হয়। এজন্য ডাইনামিক ওয়েব সাইটকে ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনও বলা হয়ে থাকে।

সবই তো বুঝলাম কিন্তু প্রশ্ন হল, ওয়েব ডিজাইন জিনিসটা আসলে কি ? আর ওয়েব ডেভেলপমেন্ট বলতেই বা কি বুঝায় ?

আপনার এই উত্তরটা একদম সহজ কথায় যদি বলতে চাই তাহলে ওয়েব ডিজাইন হচ্ছে স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট তৈরি করা। একটি ওয়েবসাইট দেখতে কেমন হবে, কোথায় কি থাকবে, কোথায় কোন পাশে কোন রং ব্যবহার করা হবে, কেমন ফন্ট হবে, কোথায় কোন পাশে ছবি বা গ্রাফিক্যাল কন্টেন্ট থাকবে। এগুলোর বিভিন্ন ওয়েব টেকনোলজি ব্যবহার করে তৈরি করাটাই মূলত ওয়েব ডিজাইন।

আরও পড়ুনঃ

১। কিভাবে আপনি ই পাসপোর্টের জন্য আবেদন করবেন

২। কিভাবে ই পাসপোর্ট সেক করবেন

আর ওয়েব সাইটে এই মহান কাজটা যারা করে থাকেন অর্থাৎ একটা ওয়েব সাইটের কনটেন্ট মানে দৃশ্যমান জিনিসগুলো যারা তৈরি করেন তাদেরকে আমরা ওয়েব ডিজাইনার বলে থাকি। আর web development জিনিসটা কি ? ডায়নামিক ওয়েবসাইট বা ওয়েব এপ্লিকেশন তৈরী করার প্রসেসটাই হলো ওয়েব ডেভেলপমেন্ট। অর্থাৎ এখানে ওয়েব ডিজাইনের পাশাপাশি প্রোগ্রামিং এরও একটি বিষয় আছে। আর এই প্রোগ্রামিং এর বিষয়টাই সাধারণত দৃশ্যমান হয় না। একটি ওয়েবসাইটের পিছনে বা ব্যাকেনডে মহান কাজটি যারা করে থাকেন তাদের আমরা ওয়েব ডেভলপার বলে থাকি।

ওয়েব ডেভেলপাররা সাধারণত ওয়েব সাইট ও ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন টি দেখতে কেমন হবে এটা নিয়ে মাথা ঘামায় না। এটা ওয়েব ডিজাইনারের কাজ। এর চেয়ে বরং ওয়েবসাইটের ফাংশনালিটি নিয়ে তারা কাজ করে। তাই বলা যায় ওয়েব ডিজাইনের ঠিক পরের ধাপেই হচ্ছে ওয়েব ডেভলপমেন্ট। এজন্য একেকটা ওয়েব ডেভেলপাররাই হচ্ছেন একজন ওয়েব ডিজাইনার। কিন্তু প্রতিটা ওয়েব ডিজাইনার একটা ওয়েব ডেভলপার নয়। web design course বা web development course কেন করবেন বা কেন শিখতে যাবেন।

বর্তমানে সারাবিশ্বে আনুমানিক প্রায় ৭০০ মিলিয়নেরও বেশি একটিভ ওয়েবসাইট রয়েছে। আর ইন্টারনেটের জনপ্রিয়তা দিন দিন কি পরিমান বেড়ে চলেছে তা নতুন করে বলার কিছুই নেই। আর ইন্টারনেট মানেই হচ্ছে ওয়েবসাইট বা ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন। ইন্টারনেট ব্যবহার করে আমি যখনই কোনো কিছু বের করতে যাব তখনই কোন না কোন ওয়েবসাইট বা ওয়েব এপ্লিকেশন এর সাহায্য নিয়েই করতে হবে। তাই web design course শিখার গুরুত্ব কতখানি তা আপনার বুঝতে এখন আর খুব বেশী একটা কষ্ট করতে হবে না।

বর্তমানে বাংলাদেশে অফিশিয়াল হিসাবে যে পরিমাণ দক্ষ ওয়েব ডিজাইনার ও ওয়েব ডেভলপার রয়েছে তার মাত্র 20 শতাংশ মানুষ এখন web design সেক্টরে কাজ করছেন। এজন্য একজন দক্ষ ওয়েব ডিজাইনার ও ওয়েব ডেভেলপারের চাহিদা অনেক বেশী। আর এটা তো গেলা শুধুমাত্র চাকরির কথা। এছাড়াও ফ্রীলেন্সিং, আউটসোর্সিং এ ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট এর কাজের চাহিদা রয়েছে সবচেয়ে বেশি। তাহলে আপনি কেন web design course শিখবেন সেটা এখন নিজেই খুঁজে বের করুন।

ওয়েব ডিজাইন শিখতে হলে কি কি কোর্স শিখা প্রয়োজন? কিভাবে শিখবেন এবং কোথায় থেকে শুরু করবেন। web design course শিখা শুরু করার আগে এই ধরনের প্রশ্ন সবার মনে ঘুরপাক খেতে শুরু করে। আর মনের মধ্যে এই প্রশ্নটি আশা একেবারেই সঠিক। তাই এই সম্পর্কে বিস্তারিত উত্তর পাওয়ার জন্য এই আর্টিক্যালটি মনোযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ পড়ুন।

আপনি web design কোর্স কেন শিখবেন ?

web design জিনিসটা অনেকের কাছেই আগ্রহের কেন্দ্র বিন্দুতে থাকে। এর অন্যতম প্রধান কারণ হচ্ছে ইন্টারনেটে এর সহজ লভ্যতা এবং এর নানাবিধ ব্যাবহার। আমরা সবাই এটা মানি যে, ইন্টারনেট আমাদের সবার কাছে নিত্যদিনের একটি অত্যন্ত অপরিহার্য বিষয়ে পরিনত হয়েছে। এখন আমরা চাইলে ইন্টারনেট ঘেঁটে অনেক অনেক তথ্য সহজেই পেতে পারি এবং নিমিষেই অনেকগুলো কাজ সেরে ফেলতে পারি।

আর ইন্টারনেটের এই সহজলভ্যতার কারনেই ওয়েবসাইট তৈরির চিন্তা মাথায় এসেছে সবার মধ্যে। তাই প্রত্যেকটি কোম্পানি, প্রত্যেকটি ব্র্যান্ড এমনকি রাজনীতিবিদ, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার সহ প্রত্যেকটি মানুষেরই প্রয়োজন হচ্ছে একটি করে ওয়েবসাইটের। তাই বলতে পারেন Website is an online representor of everything. তাছাড়া বিশ্বব্যাপী আমাকে, আপনাকে, কোন একটি কোম্পানিকে বা আপনার দক্ষতাকে অনলাইনে রিপ্রেজেন্ট কে করবে।

আর এজন্যই ওয়েব সাইট তৈরি করা ও তৈরি করা শিখাটা এখন যুগের অন্যতম চাহিদায় পরিনত হয়েছে। অন্তত আপনার নিজের ওয়েবসাইটটিকে রক্ষণাবেক্ষণের জন্য হলেও আপনার web design course শিখা জরুরী। তাই চলুন জেনে নেই ওয়েব ডিজাইন শিখতে হলে আপনাকে কি কি জানতে হবে। অনেকে অনেক ধরনের কথাই বলবে। কিন্তু আপনাকে ওয়েব ডিজাইন শিখার শুরুতে শিখতে হবে

আপনি মাত্র এই তিনটি বিষয় জানলেই পৃথিবীর যেকোনো ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন খুব সহজেই। এছাড়া Web design course এর মধ্যে আরও রয়েছে web designing, graphics designing, web programming language learning. এগুলো আপনাকে একদম সহজ থেকে কঠিন ভাবে শিখতে হবে। তবেই হবেন আপনি একজন দক্ষ ওয়েব ডিজাইনার ও ডেভেলপার।

এখন আপনাকে বুঝতে হবে এগুলো শিখতে গেলে আপনার কি কি জিনিস লাগবে। প্রথমেই প্রোগ্রাম শিখার জন্য আপনার একটি কম্পিউটার থাকতে হবে। যেটা কোনরকমে চালু করা যায় বা রানিং থাকে। তেমন কোন কনফিগারেশনের প্রয়োজন নেই। সেটি হলেও চলবে ওয়েব ডিজাইনের জন্য। অর্থাৎ আপনার কোন হাই কনফিগারেশনের কম্পিউটার এর দরকার হবে না।

সেই কম্পিউটারটি চালানোর জন্য বেসিক জ্ঞান সমূহ অর্থাৎ কিভাবে কম্পিউটার চালু করবেন, কিভাবে নতুন একটি ফোল্ডার খুলবেন, কিভাবে একটি সফটওয়্যার ইন্সটল করবেন, কিভাবে কপি ও সেইভ করতে হয় ইত্যাদি এই সমস্ত বেসিক জ্ঞানগুলো আপনার নলেজে থাকতে হবে। এছাড়াও ইন্টারনেট সম্পর্কে আপনার একটি পরিষ্কার ধারণা থাকা দরকার। আপনার যদি জানা না থাকে তাহলে Web design course করার আগে সেই জ্ঞানগুলো অর্জন করুন।

কিন্তু যেহেতু আপনি এখানে এসেছেন জানার জন্য। তাহলে ধরে নিতে পারি যে, আপনার এই বিষয়ে জ্ঞানগুলো অবশ্যই আছে। এরপর আসবে কয়েকটি সফটওয়্যার। ওয়েব ডিজাইন শিখতে গেলে প্রাথমিক পর্যায়ে আপনার কিছু সফটওয়্যার এর প্রয়োজন হবে। যেগুলো আপনি খুব সহজেই ইন্টারনেট থেকে নামিয়ে নিতে পারবেন। তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে একটি ব্রাউজার ও একটি টেক্সট এডিটর।

এছাড়াও সবশেষে যে জিনিসটা লাগবে সেটা হল শেখার জন্য প্রবল ইচ্ছা ও ধৈর্য। আর হ্যাঁ, এটাই হচ্ছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটা জিনিসে। যা আপনার ওয়েব ডিজাইন শিখতে হলে সবচেয়ে বেশি দরকার। আগের তিনটি জানিস আপনার না থাকলেও আপনি কোন না কোনভাবে ওয়েব ডিজাইনিং শিখে ফেলবেনই।

কিন্তু শিখার এই প্রবল আগ্রহটি না থেকে আর বাকিগুলো থাকলেও আপনার কোনদিনও Web design শিখা সম্ভব হবে না। তাই Most Important এই জিনিসটা আপনার সবার আগে দরকার। আর এই জিনিসগুলো যদি আপনার থেকে থাকে তখনই আপনার মনে হবে Web design course কোথায় থেকে এবং কিভাবে শিখব।

Web design course কোথায় থেকে শিখবেন এবং কিভাবে শিখবেনঃ

Web design শিখার জন্য আপনার সামনে দুটি পথ খোলা আছে। যার একটি হল কোন Web design course এ ভর্তি হওয়া। যে কোনো কম্পিউটার ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে আপনি তিন মাস, ছয় মাস অথবা এক বছর মেয়াদী কোর্স খুঁজে পাবেন। আপনার সুবিধা মত যে কোন মেয়াদের কোর্সে আপনি ভর্তি হয়ে যেতে পারেন। সেখান থেকে আপনি Web design এর বেসিকটা শিখতে পারবেন। আর এভাবে আপনি তখনই শিখতে যাবেন যখন আপনার নিজে নিজে শেখার ক্ষমতা আপনার থাকবে না। আর যদি নিজে নিজে কোন কিছু শেখার চরম আগ্রহ আর ধৈর্য আপনার থেকে থাকে তবে ওয়েব ডিজাইন শিখতে আপনাকে কোন ট্রেনিং সেন্টারে যেতে হবে না।

আর দ্বিতীয় পদ্ধতি হল বই পড়ে, ইন্টারনেট ঘেঁটে অথবা ইউটিউবে কোন একজন অভিজ্ঞ ডিজাইনারের ভিডিও দেখেই আপনি ঘরে বসে ওয়েব ডিজাইন শিখে ফেলতে পারেন। তবে ওয়েব ডিজাইন কোর্সের সার্টিফিকেট এর প্রয়োজন হলে আপনার কোন একটি প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হয়ে শিখতে হবে। তবেই আপনি সার্টিফিকেট নিতে পারবেন। তবে ইদানিং কিছু প্রতিষ্ঠান web design course online এ করিয়েও তাদের সার্টিফিকেট প্রদান করছে।

আপনি যদি নিজেই Web design শিখতে চান তাহলে কিভাবে শুরু করবেনঃ

একেবারে প্রাথমিক অবস্থাতে ওয়েব ডিজাইনিং শিখা শুরু করাটা কঠিন কিছুই না। তবে আপনাকে মনস্থির করতে হবে যে আপনি ওয়েব ডিজাইন শিখবেন এবং সেটা যে কোন পরিস্থিতিতেই হোক শিখে শেষ করবেন। অর্থাৎ ওয়েব ডিজাইন শিখতে হলে আপনাকে এর পিছনে লেগে থাকতে হবে এবং এর জন্য প্রতিদিন কিছু সময় বের করতে হবে।

প্রাথমিক অবস্থায় অর্থাৎ প্রথম দিকে দিনে কমপক্ষে দুই ঘণ্টা এবং সর্বোচ্চ চার ঘন্টা সময় শুধু এটা শিখার পেছনে ব্যয় করতে পারেন। এর জন্য দিন অথবা রাতে এক বা একাধিক স্লটে আপনাকে সময়টা বের করে নিতে হবে যদি আপনি চাকরিজীবী অথবা অন্যকিছু করে থাকেন।

আপনার কম্পিউটারটিকে ওয়েব ডিজাইন শিখার উপযোগী করে তোলার জন্য প্রাথমিক পর্যায়ের মাত্র দুইটি সফটওয়্যার ইন্সটল করতে হবে। যদি সফটওয়্যার দুটি ইন্সটল করা না থাকে তবে সেটা ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড করে ইন্সটল করে ফেলুন। তার প্রথমটি হল যে ভাল মানের একটি টেক্সট এডিটর যা একটি ডেক্সটপের সফটওয়্যার এবং এটি যে কোন ধরনের টেক্সট বেইজ ফাইল কে এডিট করতে পারবে। আর অপরটি হল একটি ভাল মানের ইন্টারনেট ব্রাউজার।

Web design course শিখার জন্য সবচাইতে ভাল মানের টেক্সট এডিটর হল notepad++ । যেটা আপনার ওয়েব ডিজাইন শিখার জন্য অন্যতম সঙ্গি হবে। আপনি ইন্টারনেটে সার্চ করলে এটার থেকেও আরও ভাল মানের সফটওয়্যার পাবেন। কিন্তু নতুনদের কাজ শিখার জন্য এটািই অনেক ভাল। কারণ আপনি যত নিম্ন মানের টেক্সট এডিটর ব্যাবহার করবেন ততই আপনাকে টেক্সট লিখে লিখে কাজ করতে হবে। অর্থাৎ আপনাকে পুরো টেক্সট লিখে তারপর কাজ করতে হবে।

অপরদিকে ভাল মানে সফটওয়্যারগুলোতে কিছু টাইপ করলেই তার পুরো সাজেশনটি চলে আশে বা কিছু কোড লিখলেই পুরো কি-ওয়ার্ডটি চলে আসে। যা একজন ডেভেলপারকে কোড লিখার ক্ষেত্রে সময় ও কষ্ট অনেক কমিয়ে দিতে পারে। তবে এগুলো অভিজ্ঞদের জন্য সুবিধার। নতুনদের জন্য সুবিধার নয়। যেটা কিনা শিখার জন্য অনেকটা সাহায্যকারী মনে হলেও আপনার জানার আগ্রহটা কিছুটা কমে যেতে পারে।

তাই আপনি মাথার ঘাম পায়ে ফেলে একটি একটি করে কোড লিখে আপনি যাতে Web design course শিখতে পারেন তার জন্য এই notepad++ সফটওয়্যারটি ভালো হবে। তার চেয়ে বরং আপনি যদি পুরো শব্দ লিখে প্রোগ্রামিং করেন তাহলে আপনার সহজে মনে থাকবে। তাই আপনি এই সফটওয়্যারটি ব্যাবহার করুন। যেটা আপনি ইন্টারনেট থেকে এখনই নামিয়ে নিন অথবা সংগ্রহ করে ইন্সটল করে ফেলুন। এখন আপনি খুব সহজেই যেকোন ফাইল এডিট ও শেয়ার করতে পারবেন।

আমরা যেহেতু একটি ওয়েব পেইজ তৈরি করব। তাই ওয়েব পেইজটি প্রদর্শনের জন্য একটি ভাল মানের ও আপডেটের ওয়েব ব্রাউজারের দরকার পড়বে। কারণ কোন ওয়েব পেইজই ইন্টারনেট ব্রাউজার ছাড়া প্রদর্শন করা যায় না। এজন্য গুগল ক্রম, মজিলা ফায়ার ফক্স অথবা অপেরা মিনি ইত্যাদি ব্রাউজার ব্যাবহার করতে পারেন।

আপনি যদি এগুলো করে থাকেন তাহলে আপনার কম্পিউটারটি Web design শিখার জন্য মোটামুটি প্রস্তুত হয়ে গেছে। তাহলে আর দেরী না করে আজ থেকেই Web design course শিখা শুরু করে দিন। পরবর্তীতে এই সম্পর্কিত আরও পরামর্শ ও দিক নির্দেশনা পেতে চাইলে নিচে কমেন্টে লিখে জানাতে পারেন আপনাদের কথগুলো।

Leave a Comment

error: Content is protected !!