Verification: 604f510ca357bb64

ছেলেদের ত্বক ফর্সা ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির উপায়

ছেলেদের ত্বক ফর্সা ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির উপায়। ছেলেদের গায়ের রং যত উজ্জ্বলই হোক না কেন সারাদিন কাজের চাপ, বাইরের পলিউশন ইত্যাদি কারনে ছেলেদের গায়ের রং ধীরে ধীরে কালো হতে থাকে। তবে ছেলেদের ত্বকের ধরন কিন্তু মেয়েদের ত্বকের থেকে কিছুটা ভিন্নতর হয়ে থাকে।

 

তাই ছেলেদের ত্বকের যত্নটাও একটু ভিন্নভাবে নিতে হয়। তাই ছেলেরা যদি তাদের ত্বকের ব্যাপারে মেয়েদের রূপচর্চার মতো করে একটু যত্নবান ও একটু যত্নশীল হয় তাহলে তাদের কালো ত্বকের সকল সমস্যা দূর করে ত্বকের সৌন্দর্য দীর্ঘদিন ধরে রাখতে পারে। তাই ছেলেদের ত্বক ফর্সা ও স্বাস্থ্যজ্জ্বল রাখতে নিয়মিত ত্বকের যত্ন নেওয়া উচিত।

 

ছেলেদের ত্বক ফর্সা করার কিছু টিপস এখানে আলোচনা করা হল। প্রথমেই ছেলেদের ত্বক ফর্সা করার যে উপায়টি দেখানো হয়েছে তা দুটি স্টেপে করতে হবে।

০১। স্ক্রাবিং এবং

০২। ফেসপ্যাক।

কিভাবে এপ্লাই করতে হবে চলুন জেনে নেই।

০১। প্রথম স্টেপ স্ক্রাবিংঃ এই জন্য প্রথমে একটি বাটিতে এক চামুচ চিনি ও এক চামুচ লেবুর রস নিয়ে নিন। এখন এই দুটি উপাদানকে ভালো করে মিক্স করে নিতে হবে। ব্যাস এটাই হল এক ধরনের স্ক্রাবার। তবে খুব কার্যকরী। এখন এই স্ক্রাবারটি দিয়ে আপনার ত্বকের উপর পাঁচ মিনিট ধরে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে মেসেজ করে স্ক্রাবিং করুন।

 

এভাবে স্ক্রাবিং করার ফলে আপনার ত্বকে ব্লাড সার্কুলেশন বৃদ্ধি পাবে এবং ধীরে ধীরে ত্বক থেকে ধুলা ময়লা দূর হতে শুরু করবে। আর সাথে সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতাও বেড়ে যাবে। তারপর পরিষ্কার পানি দিয়ে মুখ ভালো করে ধুয়ে দ্বিতীয় ধাপটি অর্থাৎ ফেসপ্যাকটি এপ্লাই করুন।

 

০২। দ্বিতীয় ধাপ ফেসপ্যাকঃ এজন্য প্রথমেই একটি বাটিতে দুই টেবিল চামুচ চালের গুঁড়া, এক টেবিল চামুচ কাগজী লেবুর রস, আধা চামুচ খাঁটি মধু ও এক টেবিল চামুচ গোলাপজল নিয়ে সবগুলো উপাদান ভালো করে নেড়ে মিক্স করে নিন। ব্যস এভাবেই ছেলেদের ত্বক ফর্সা করার ফেসপ্যাকটি তৈরি হয়ে গেল। এখন এই ফেসপ্যাকটি আপনার ত্বকে ভাল করে এপ্লাই করুন।

 

এই ফেসপ্যাকটি ব্যবহারের ফলে ছেলেদের ত্বক থেকে পুরনো কালচে দাগ সহ ব্রন ও ব্রনের দাগ দূর হয়ে ত্বক ফর্সা হয়ে যাবে। ছেলেরা এই ফেসপ্যাকটি মাত্র প্রথমবার ব্যাবহারের পর থেকেই এর রেজাল্ট দেখতে পাবেন। ফেসপ্যাকটিকে এভাবে মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে নরমাল পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। তারপর মুখ মুছে ভাল মানের একটি লোশন বা ক্রিম এপ্লাই করুন। এই মিশ্রণটি আপনি সপ্তাহে তিনবার করে কমপক্ষে এক মাস নিয়মিত ব্যবহার করুন। তাহলে আর কখনো আপনার মুখে কালচে ভাব আসবে না।

 

০৩। দুধ ও লেবুর মিশ্রণঃ দুধ হলো এমন একটি উপাদান যার মধ্যে সব ধরনের পুষ্টি উপাদান বিদ্যমান রয়েছে। সকলের স্বাস্থ্য সুরক্ষা থেকে শুরু করে ছেলেদের ত্বক ফর্সা করতে দুধ একটি কার্যকরী উপাদান। কারণ দুধে রয়েছে ল্যাকটিক এসিড যা ত্বকের কালো ভাবকে দূর করে দিতে পারে। তাই প্রথমেই একটি বাটিতে দুই টেবিল চামুচ কাঁচা দুধ নিয়ে তার সাথে এক টেবিল চামুচ লেবুর রস ও দুই টেবিল চামুচ চালের গুঁড়া এ্যাড করুন। এখন এই তিনটি উপাদান ভালো করে মিক্স করে নিন।

 

ছেলেদের ত্বক থেকে কালো ময়লা দাগ দূর করতে চালের গুঁড়া দারুন কাজ করে এবং ত্বককে দ্রুত উজ্জ্বল ও ফর্সা করে তোলে। এখন এই মিশ্রণটি মুখে লাগানোর আগে ভালোকরে ধুয়ে নিয়ে তারপর আপনার মুখে মেসেজ করে করে লাগিয়ে নিন এবং ফেসিয়াল ম্যাসেজ এর মত করে চার পাঁচ মিনিট ধরে ঘষতে থাকুন। তাহলে আপনার মুখের ত্বকের উপরে থাকা কালচে ময়লা দাগ সমূহ ধীরে ধীরে সরে গিয়ে ত্বক পরিষ্কার হয়ে যাবে।

 

চাইলে এটি আপনার গলায় ও ঘাড়ে ব্যবহার করতে পারেন। মিশ্রণটি আপনার মুখে লাগানোর পর শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। তারপর পরিষ্কার পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এভাবে নিয়মিত এক মাস এই মিশ্রণটি ব্যবহার করলে ছেলেরা পার্মানেন্টলি ফর্সা ও সুন্দর হয়ে যাবেন নিশ্চিত করে বলা যায়।

 

০৪। চন্দন গুঁড়া ও কাঁচা দুধঃ ত্বকের সৌন্দর্য বর্ধনে কাঁচা দুধের উপকারিতার কথা আমরা আগেই জেনে এসেছি। আর রূপচর্চায় চন্দনের গুড়ার ব্যবহার হল একটি প্রাচীন পদ্ধতি। আর তাই প্রাচীনকাল থেকেই রূপচর্চায় চন্দনের গুঁড়া ব্যবহার হয়ে আসছে। তাই প্রথমে একটি পাত্রে দুই টেবিল চামুচ কাঁচা দুধের সাথে দুই টেবিল চামুচ চন্দনের গুঁড়া ভালো করে মিশিয়ে নিন।

 

তারপর একটি লেবু কেটে তার পুরোটা রস বের করে আপনার ত্বকে আগে ভালো করে সারা মুখে ঘষে লাগিয়ে নিবেন। ছেলেদের মুখ সাধারণত মেয়েদের ত্বকের থেকে কিছুটা আলাদা হয়। আর মেয়েদের তুলনায় ছেলেদেরকে বাইরে থাকতে বা যেতে হয় বেশি। তাই তাদের চেহারায় যে কালচে দাগ পড়ে যায় সেটা সহজে রিমুভ করা যায় না। তাই সেই সমস্ত কালচে ময়লা দাগকে তোলার জন্য প্রথমেই শুধুমাত্র লেবুর রস দিয়ে কিছুক্ষণ ঘষে নিতে হবে।

 

তারপর তৈরি করা মিশ্রণটি আপনার মুখে আঙ্গুল দিয়ে লাগিয়ে রাখুন কমপক্ষে পাঁচ মিনিট। তারপর পরিষ্কার পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এভাবে নিয়মিত সপ্তাহে তিন দিন করে টানা এক মাস ব্যবহার করলে দ্রুত ছেলেদের ত্বক ফর্সা ও উজ্জ্বল হয়ে যাবে।

 

০৫। বেসন ও ময়দাঃ ফর্সা ত্বক পেতে এই দুইয়ের মিস্রন দারুন কাজ করে। তাই চেলেরা এই টিপসটি ফলো করতে পারেন। প্রথমে একটি পাত্রে দুই টেবিল চামুচ বেসন, দুই টেবিল চামুচ ময়দা, দুই টেবিল চামুচ আমন্ড অয়েল ও দুই টেবিল চামুচ গোলাপজল নিয়ে সবগুলোকে ভালো করে মিশিয়ে নিন। তারপর মিশ্রণটি মুখে ও গলায় লাগিয়ে বিশ মিনিট পর পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তারপর মুখ ভালো করে মুছে যে কোন একটি ময়েশ্চারাইজার লোশন লাগিয়ে নিন। এভাবে কিছুদিন নিয়মিত ব্যাবহার করতে থাকুন। তাহলে ত্বক থেকে কালো ময়লা দাগ দূর হয়ে ছেলেদের ত্বক অনেক ফর্সা আর উজ্জ্বল হয়ে যাবে।

 

০৬। বেসন ও শসার মাস্কঃ একটি বাটিতে সামান্য বেসন মধু চিনি ও শসার রস নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে একটি মাস্ক বানিয়ে নিন। তারপর এই মাস্কটি সপ্তাহে অন্তত দুইবার করে আপনার মুখের ত্বকের উপর ব্যবহার করুন। তারপর ১৫ মিনিট পর্যন্ত রেখে ধুয়ে ফেলুন। চাইলে বেসন এর পরিবর্তে আপনি এখানে ময়দাও ব্যবহার করতে পারেন। নিয়মিত এই মাস্কটি ত্বকে ব্যবহারের ফলে আপনার ত্বকের ব্ল্যাক হেডস এর সমস্যা থাকলে তা দূর হয়ে যাবে। ছেলেদের ত্বক থেকে ব্ল্যাকহেড দূর করতে এটি খুবই সুন্দর কাজ করে।

 

আরও পড়ুনঃ ছেলেদের মুখের ব্রণ দূর করার উপায়

 

ছেলেদের ত্বক ফর্সা ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে কিছু পরামর্শঃ

১। প্রতিদিন অন্তত দুইবার হালকা ক্লিনজার দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করুন। তাহলে ত্বকে ময়লা জমে দাগ পড়বেনা এবং ত্বক ভাল থাকবে।

২। আমরা সবাই জানি ত্বকের জন্য ফেসওয়াশ কতটা উপকারী। তাই নিয়মিত ভালোমানের একটি ফেসওয়াশ ব্যবহার করুন।

৩। শেভ করার জন্য সব সময় নতুন ব্লেড ব্যবহার করুন। আর অবশ্যই ভালো ব্র্যান্ডের শেভিং ক্রিম, শেভিং জেল ও আফটার শেভ লোশন ব্যবহার করুন।

৪। কাজের প্রয়োজনে বাইরে যাওয়ার আগে অবশ্যই মুখে সানস্ক্রিন লাগিয়ে বের হবেন। আর সানস্ক্রিনটা ৩০ পিএইচপি হলে ভালো হয়।

৫। রাতে কিংবা দিনে যখনই ঘরে ফিরবেন ত্বক পরিষ্কার করে সাথে সাথে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিবেন।

৬। অ্যালোভেরা জেল মুখের ত্বকের জন্য খুবই উপকারী ও সাস্থসম্মত। পারলে দৈনিক সকালে গোসলের আগে অথবা শোয়ার আগে একবার ব্যবহার করুন।

৭। ত্বকের আরেকটু বাড়তি যত্ন নিতে প্রতি মাসে অন্তত একবার জেন্টস পার্লারে গিয়ে ফেসিয়াল করতে পারেন। এতে ত্বক ভাল থাকবে ও সুন্দর থাকবে।

৮। ত্বক সবসময় সজীব রাখতে প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট সময়ে আলু, শসা, টমেটোর রস মুখে, গলায় ও ঘাড়ে কিছুক্ষণ লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন।

৯। স্ট্রেস, বিষন্বতা, অপর্যাপ্ত ঘুম ত্বকের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। প্রয়োজনে মেডিটেশন বা ইয়োগা করতে পারেন।

১০। রাত জাগা পরিহার করুন ও দ্রুত ঘুম থেকে উঠার অভ্যাস করুন। সকালের সূর্য উদয় দেখার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

১১। ত্বকের মূল ও প্রধান উপাদান হল পানি। তাই ত্বক ভাল রাখতে পর্যাপ্ত পানি পান করুন।

১২। নিয়মিত টাটকা শাক সবজি, সামুদ্রিক মাছ ও ফলমূল বেশি করে খান।

১৩। নিয়মিত আপনার ত্বকের যত্ন নিন। তাহলে আপনার ত্বক এমনিতেই ভালো থাকবে।

১৪। বিষণ্ণতা পরিহার করুন। পারলে পছন্দের গান শুনুন মন ভাল হয়ে যাবে।

১৫। বাইরে গেলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করুন।

১৬। মুলতানি মাটি ত্বক ইনস্ট্যান্ট ফর্সা করতে সাহায্য করে। গোসলের আগে গোলাপজলের সাথে মিশিয়ে সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করুন। 

 

আশাকরি উপরের টিপসগুলো ছেলেদের ত্বক ফর্সা ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে কাজে আসবে। কোনকিছুই দ্রুত রেজাল্ট পাওয়া যায়না। আর পেলেও সেটা দীর্ঘস্থায়ী হয় না। তাই উপরের ন্যাচারাল টিপসগুলো নিয়মিত ফলো করে দেখুন অবশ্যই ভাল এবং দীর্ঘস্থায়ী একটি রেজাল্ট পাবেন।

আরও পড়ুনঃ কোন খাবারগুলো খেলে আপনি সবসময় সুন্দর থাকবেন।

Leave a Comment

error: Content is protected !!