ঘরোয়া ভাবে চুল সিল্কি করার উপায়। সুন্দর ঘন কালো চুলের প্রশংসা শুনতে কেনা চায়। কারন চুলের সৌন্দর্যই যে হল নারীর আসল সৌন্দর্য। প্রত্যেকটি নারীর আকাঙ্ক্ষা থাকে তার চুলগুলো অনেক সুন্দর সিল্কি শাইনি আর ঝলমলে থাকুক সবসময়। যেন হালকা বাতাসেই তার চুলগুলো উড়ে আর খেলা করে বাতাসের সাথে।

নারীদের পাশাপাশি ছেলেদেরও এখন চুলের সৌন্দর্য নিয়ে ভীষণ বেস্ত থাকতে দেখা যায়। তারাও ভাবতে থাকে কি করে প্রিয়জনের সামনে সিল্কি চু্ল এর সুন্দর একটা স্টাইল দেখাবে।

আর সুন্দর চুল মানেই হল সিল্কি চুল। এই চুলের সৌন্দর্য বাড়াতেই রমণীরা বউটি পার্লারে গিয়ে হাজার হাজার টাকা খরচ করেন। টাকা যাই লাগুক আমার চুল সিল্কি হওয়া চাই। অনেকে আবার পার্লারে গিয়ে রূপচর্চা করা বা চুলের স্টাইল করা পছন্দ করেনা। আবার অনেকে চাকরীর ব্যস্ততার জন্য চুলের সৌন্দর্যের পেছনে পর্যাপ্ত সময় দিতে পারেন না।

তাই ঘরে বসেই আপনি আপনার হাতের কাছে থাকা ব্যবহৃত উপাদান দিয়ে অতি দ্রুত সময়ে সংসারের কাজের পাশাপাশি কিভাবে আপনি আপনার চুল সিল্কি আর ঝলমলে করতে পারেন তার কয়েকটি কার্যকরী টিপস নিয়ে এখন আলোচনা করব।

১। এলভেরা ও লেবুঃ এলভেরা ত্বকের সৌন্দর্যের জন্য যেমন উপকারী চুলের যত্নেও এলভেরা তেমনি খুবই উপকারি। চুলের পুষ্টি যোগাতে এলভেরার কোন জুড়ি নেই। আর লেবুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন- সি, সাইট্রিক এসিড ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা চুলের বৃদ্ধি ও পুষ্টি বজায় রেখে আপনার চুল সিল্কি ও সুন্দর করে তুলবে। চলুন জেনে নেই মিশ্রণটি কিভাবে বানাতে হবে।

ব্যাবহার প্রণালীঃ প্রথমে আপনার চুলে শ্যাম্পু করে ভালকরে ধুয়ে কিছুটা শুকিয়ে নিবেন। তারপর একটি পাত্রে দুই চামুচ এলভেরা জেল নিয়ে তার সাথে আধা চামুচ লেবুর রস মিশিয়ে ভালকরে মিশিয়ে নেড়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এই মিশ্রণটি একটি ন্যাচারাল কন্ডিশনার এর মত কাজ করবে।

তবে মিশ্রণটি আপনার চুলের দৈর্ঘের উপর নির্ভর করে তৈরি করতে হবে। চুল বেশী লম্বা হলে এলভেরা ও লেবুর পরিমাণও বাড়াতে হবে।

এখন এই মিশ্রণটি তৈরি করা হয়ে গেলে আপনার চুলের উপরে গোঁড়ার দিক থেকে নিচের দিক পর্যন্ত আঙ্গুল দিয়ে টেনে টেনে তেল মালিসের মত করে ম্যাসেজ করে লাগান। প্রয়োজনে চুলগুলোকে কিছু কিছু করে ভাগ করে নিয়ে লাগাতে পারেন। এভাবে মিশ্রণটি চুলে ভাল করে লাগিয়ে বিশ মিনিট অপেক্ষা করে নরমাল পানি দ্বারা ধুয়ে ফেলুন। মিশ্রণটি চুলের গোঁড়ায় দেয়ার কোন প্রয়োজন নেই। শুধুমাত্র চুলের দৈর্ঘ বরাবর দিয়ে যেতে হবে।

এই হেয়ার প্যাকটি এতটাই কাজ করে যে মাত্র একবার ব্যাবহারেই আপনি খুবই চমৎকার ঝলমলে ও রেশমি চুল পাবেন। যারা চুল নিয়মিত কালার করে রাখতে পছন্দ করেন তারাও এই হেয়ার প্যাকটি ব্যাবহার করতে পারেন।

২। পাকা কলা ও মধুঃ চুলের যত্নে কলা একটি অসাধারণ টনিক হিসাবে কাজ করে। কলা চুলকে দ্রুত লম্বা মোলায়েম ও ঝলমলে করে। কারণ কলায় আছে প্রচুর পরিমানে কার্বোহাইড্রেট পটাশিয়াম ও ভিটামিন। চুলের খুশকি দূর করার সাথে সাথে চুলের রুক্ষতাও দূর করে চুল পরা কমাতে সাহায্য করে।

আর মধু অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ হওয়ায় চুল ভেঙ্গে যাওয়া রোধ করে চুলের উজ্জ্বলতা ও পুষ্টি বৃদ্ধি করে। লম্বা ও ঘন চুল পেতে মধুর কোন জুড়ি নেই। মিশ্রণটি কিভাবে বানাতে হবে চলুন জেনে নেই।

ব্যাবহার প্রণালীঃ প্রথমে একটি পাকা কলা নিয়ে ব্লেন্ডারে দিয়ে ব্লেন্ড করে একটি পাত্রে নিয়ে নিন। তার সাথে দুই চামুচ মধু ও এক চামুচ নারিকেল তেল নিয়ে সবগুলো ভালকরে নেড়ে একটি মিশ্রণ বানিয়ে নিন। এখন এই মিশ্রণ বা হেয়ার প্যাকটি আপনার সমস্ত চুলের গোঁড়া সহ ভালকরে লাগিয়ে এক ঘণ্টা রাখুন। তারপর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

ভাল ফলাফল পেতে এটি সপ্তাহে দুবার ব্যাবহার করুন। এটি ব্যাবহারে আপনার চুল পড়া কমে গিয়ে চুল হবে আরও আকর্ষণীয় আর সিল্কি।

Note: আপনি এখানে নারিকেল তেলের পরিবর্তে সাদা টক দইও ব্যাবহার করতে পারেন। তখন টক দই পরিমানে তিন চার চামুচ মিশাতে হবে।

৩। ভিটামিন-ই ও লেবুঃ চুল সিল্কি করতে লেবু খুবই উপকারী। লেবুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন- সি, সাইট্রিক অ্যাসিড ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা চুলের বৃদ্ধি ও পুষ্টি বজায় রেখে চুলকে সিল্কি করে তুলবে। আর ভিটামিন-ই চুলের স্বাস্থ্য ঠিক রেখে চুল পড়া কমিয়ে চুলকে ঘন করতে সাহায্য করে। চুলের আগা ফাটা রোধ করে চুলকে উজ্জ্বল ও সিল্কি করে তুলবে।

ব্যাবহার প্রণালীঃ চুল সিল্কি করার এই অসাধারণ প্যাকটি তৈরি করার জন্য প্রথমে একটি পাত্রে দুই টেবিল চামুচ রেগুলার শ্যাম্পু নিন। মানে আপনি নিয়মিত যেই শ্যাম্পুটা ব্যাবহার করেন তার সাথে একটি ভিটামিন- ই ক্যাপসুল ও আধা চামুচ লেবুর রস নিয়ে ভালকরে মিশিয়ে একটি হেয়ার প্যাকটি তৈরি করে নিন। তবে এই হেয়ার প্যাকটি আপনার চুলের ঘনত্ব ও পরিমাণের উপর ভিত্তি করে কমিয়ে বাড়িয়ে তৈরি করে নিতে হবে।

এখন এই হেয়ার প্যাকটি গোসলের আগে আপনার চুলে ভালকরে চুলে শ্যাম্পু করার মত করে কিছুক্ষণ লাগিয়ে রেখে গোসল করে নিন। নরমালি এই হেয়ার প্যাকটি আপনি নিয়মিত ব্যাবহার করতে পারেন। অর্থাৎ আপনি যখনই চুলে শ্যাম্পু করবেন তখন আপনার শ্যাম্পুর সাথে ভিটামিন-ই ও লেবুর মিশ্রণ তৈরি করে চুলে লাগাবেন। তাহলে সবসময় আপনার চুল নরম, সিল্কি ও ঝলমলে থাকবে।

৪। শ্যাম্পুর সাথে চিনির মিশ্রণঃ ত্বক ও চুলের যত্নে চিনি খুবই উপকারী। চুল সিল্কি আর ঘন করতে চিনির ব্যাবহারে খুব সুন্দর ফল পাওয়া যায়। কারন চিনিতে আছে গ্লাইকলিক অ্যাসিড। যা চুলের সৌন্দর্য ধরে রাখে।

ব্যাবহার প্রণালীঃ প্রথমে একটি পাত্রে দুই টেবিল চামুচ রেগুলার শ্যাম্পু নিয়ে তার সাথে এক চা চামুচ চিনি মিশিয়ে নিন। আর দুটি উপাদানের ঘনত্ব কমাতে এর সাথে আধা কাপ পানি মিশিয়ে ভালকরে নেড়ে চিনিগুলো গলিয়ে নিন। তারপর আপনার রেগুলার শ্যাম্পুর সাথে এই হেয়ার প্যাকটি নিয়মিত ব্যাবহারে আপনার চুল হবে অত্যন্ত সিল্কি ও ঝলমলে সুন্দর।

৫। ডিম মধু ও লেবুঃ আপনার চুল পড়া বন্ধ আর শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে যাওয়া চুল সিল্কি আর মজবুত করার জন্য এই তিনটি উপাদানের মিশ্রণ চমৎকার কাজ করে। ডিমে রয়েছে ভিটামিন- ডি ও পর্যাপ্ত পরিমানে সালফার যা আপনার চুলকে গোঁড়া থেকে মজবুত করে চুলের স্বাস্থ্য সুন্দর করে তুলে।

আর লেবুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন- সি, সাইট্রিক অ্যাসিড ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা চুলের বৃদ্ধি ও পুষ্টি বজায় রেখে চুলকে সিল্কি করে তুলবে। আর মধু অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ হওয়ায় চুল ভেঙ্গে যাওয়া রোধ করে চুলের উজ্জ্বলতা ও পুষ্টি বৃদ্ধি করে চুল লম্বা ও ঘন করবে।

ব্যাবহার প্রণালীঃ প্রথমে একটি পাত্রে দুটি ডিমের সাদা অংশ নিয়ে তার সাথে দুই টেবিল চামুচ মধু ও একটি লেবুর রস নিয়ে ভালকরে মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর ঐ মিশ্রণটির মধ্যে দুই থেকে তিন টেবিল চামুচ খাঁটি নারিকেল তেল দিয়ে সুন্দর করে মাখিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন।

এখন এই মিশ্রণটি গোসলে যাওয়ার এক ঘণ্টা আগে আপনার সম্পূর্ণ চুলে ভালভাবে ম্যাসেজ করে লাগিয়ে রাখুন। এবার এক ঘণ্টা অপেক্ষা করে আপনার ঘরে থাকা রেগুলার শ্যাম্পু দ্বারা চুল ভালকরে ঘষে ধুয়ে ফেলুন। এমনভাবে ধুইতে হবে যাতে চুলে ডিমের কোন গন্ধ না থাকে।

এই হেয়ার প্যাকটি আপনি সপ্তাহে মাত্র একবার চুলে ব্যাবহার করলেই আপনার চুল হবে রেশমি সিল্কের মত চমৎকার আর মজবুত সুন্দর।

উপরের দেয়া চুল সিল্কি করার পাঁচটি পদ্ধতিই যে কোন ধরনের চুলের জন্য খুবই ভাল ও উপকারী। অত্যন্ত সহজ আর সাবলীল ভাবে বিস্তারিত আলচনা করা হয়েছে। যাতে আপনি ঘরে বসেই চুল সিল্কি করার পদ্ধতিগুলো এপ্লাই করতে পারেন।

 

 

 

একটি উত্তর প্রদান করুন

অনুগ্রহ করে এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে এখানে আপনার নাম লিখুন