ঘাড়ের কালো দাগ দূর করুন খুব সহজে মাত্র এক দিনের মধ্যে

146
ঘাড়ের কালো দাগ
Google search engine

ঘাড়ের কালো দাগ দূর করুন খুব সহজে মাত্র এক দিনের মধ্যে। আমাদের গলায় ও ঘাড়ের চারপাশে কালো দাগ পড়ে যাওয়া নিয়ে ভুগেননি এমন নারী-পুরুষ খুব কমই পাওয়া যাবে। এটা খুব কমন একটি প্রবলেম যে নারী-পুরুষ প্রত্যেককেই বয়সের একটা সময়ে গিয়ে এই ঘাড়ে ও গলায় কালো দাগ পড়ার সমস্যায় ভুগেন।

আপনি যত সুন্দর করেই সাজেন না কেন বা যত সুন্দর ড্রেসই পরেন না কেন? গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ এর জন্য আপনার সৌন্দর্য কিন্তু অনেকটাই নষ্ট হয়ে যাবে। তাই অনেকে নানা রকমভাবে ট্রিটমেন্ট করেও শেষ পর্যন্ত গলায় ও ঘাড়ের চারপাশের ডার্কনেসটা দূর করতে পারেননি।

তাদের কথা চিন্তা করে এখানে এমন কয়েকটি হোম রিমেডি শেয়ার করা হয়েছে। এগুলো সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক এবং অত্যন্ত কার্যকরী। যেটা ফলো করে আপনার গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ মাত্র একদিনেই রিমুভ করে ফেলতে পারবেন।

শুধু গলা আর ঘাড়ের কালো দাগই নয়। কনুইয়ের কালো দাগ এবং আন্ডার আর্মসের দীর্ঘদিনের কালচে দাগ ও দুরগন্ধ উঠে যাবে এই হোম রিমেডির যেকোনো একটি টিপস ব্যবহার করার ফলে। কিভাবে আপনি নিজেই ঘরে বসে ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার এই রিমেডিগুলো তৈরি করবেন তা এখানে সহজ ভাষায় আলোচনা করা হলো।

১। বেকিং সোডা, অ্যালোভেরা ও টুথপেস্টঃ ত্বক আর চুলের যত্নে বেকিং সোডার ব্যবহার অতুলনীয়। তাই প্রথমে একটি পাত্রে দেড় চামচ বেকিং সোডা নিয়ে তার মধ্যে অ্যাড করুন সমপরিমাণ হোয়াইট টুথপেস্ট। টুথপেস্ট যেকোনো ব্র্যান্ডের হলেই হবে। আর লাগবে অ্যালোভেরা জেল। অ্যালোভেরা জেল ন্যাচারাল টা হলে ভালো হয়। আর রেডিমেট নিলে ভালো ব্র্যান্ডেরটা নিবেন।

সবশেষে উপাদানগুলোর সাথে দেড় চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে দিন। এখন সবগুলো উপাদান একত্রে ভালো করে মিশিয়ে নিন। মেশানো হয়ে গেলে এর সাথে এক টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে দিন। ব্যস হয়ে গেল গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার স্পেশাল ক্রিম বা হোম রিমেডি প্যাক।

ব্যাবহার প্রণালীঃ ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার এই স্পেশাল ক্রিমটি একটি সফট ব্রাশের সাহায্যে আপনার গলায়, ঘাড়ে এবং পিঠের মধ্যে ভাল করে ম্যাসেজ করে লাগিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি এতটাই ভাল আর কার্যকরী যে, আপনি দিনে মাত্র একবার ব্যাবহার করলেই এর রেজাল্ট দেখতে পাবেন।

মিশ্রণটিকে আপনার স্কিনে লাগানোর পর ১৫-২০ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। যাতে মিশ্রণটি আপনার ব্যবহৃত স্থানে শুকিয়ে যায়। তবে এর মধ্যে কিছুক্ষণ পর পর আঙ্গুল দিয়ে ম্যাসেজ করে দিতে হবে। এর ফলে কি হবে? আক্রান্ত স্থানটি সফট হবে এবং বাড়তি কালচে দাগগুলো উঠতে শুরু করবে।

তারপর নরমাল পানি দিয়ে ভালকরে ধুয়ে ফেলুন। সবচাইতে ভাল রেজাল্ট পেতে এটি সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যাবহার করুন। তাহলেই চিরতরে আপনার গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ সম্পূর্ণরূপে দূর হয়ে যাবে।

২। অ্যালোভেরাঃ অ্যালোভেরা হচ্ছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিভাইরাল বৈশিষ্ট্যযুক্ত একটি উদ্ভিদ। ত্বকের যে কোন ধরনের কালচে দাগ তুলতে অ্যালোভেরা দারুন ভাবে কাজ করে। বয়স বাড়ার সাথে সাথে আমাদের গলার চামড়ায় ধীরে ধীরে ভাঁজ বা বলীরেখার সৃষ্টি হয়।

তারপর সেই বলীরেখা বরাবর তেল ময়লা জমে আস্তে আস্তে কালচে দাগ পড়ে যায়। ফলে গোসলের সময় সাবান দিয়ে ঘষলেও সেই কালো দাগ উঠে না। তখন এই অ্যালোভেরার নির্জাস আপনার ত্বকে ব্যাবহার করলে জাদুর মত কাজ করবে।

ব্যবহার প্রণালীঃ প্রথমে একটি পাত্রে অ্যালোভেরা কেটে তার ভেতর থেকে সমস্ত রস বের করে নিতে হবে। তারপর সেই রস আপনার ঘাড়ে ও গলায় ভালো করে ঘষে লাগিয়ে নিন। এভাবে আধা ঘন্টা রেখে দিন। তারপর নরম কাপড় বা তুলার সাহায্যে কিছুটা ঘষা দিয়ে জায়গাটি ভালকরে মুছে নিন। এভাবে নিয়মিত অ্যালোভেরা একমাস ব্যবহারে আপনার গলা ও ঘাড়ের সমস্ত কালো দাগ দূর হয়ে যাবে। এটি আপনি আপনার কনুই ও পায়েও লাগাতে পারেন।

৩। অ্যাপেল সিডার ভিনেগারঃ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার হলো ভেজানো আপেলের রস থেকে তৈরি এক ধরনের ন্যাচারাল ভিনেগার এটা যেমন শরীরকে আরো সতেজ রাখে। তেমনি রূপচর্চায়ও এর উপকারিতা অতুলনীয়। বিশেষ করে গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ তুলতে অ্যাপেল সিডার ভিনেগার চমৎকার কাজ করে।

ব্যবহার প্রণালীঃ প্রথমে দুই চামুচ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার এর সাথে দুই চামুচ পানি মিশিয়ে ভাল করে একটা মিশ্রণ বানিয়ে নিন। এবার এটি আপনার গলায় ও ঘাড়ে একটি ব্রাশের সাহায্যে ভাল করে লাগিয়ে রাখুন। এভাবে দশ থেকে পনেরো মিনিট রেখে নরম কাপড় বা তুলো দিয়ে ঘষে মুছে পরিস্কার করে নিন। এভাবে নিয়মিত দিনে একবার করে পুরো একমাস ব্যবহার করুন। তাহলে আপনার গলা আর ঘাড় হতে সমস্ত ময়লা কালো দাগ দূর হয়ে যাবে।

৪। আমন্ড অয়েলঃ আমন্ড অয়েল এ আছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন- ই। যার অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির ক্ষতিকারক প্রভাবকে ঠেকাতে পারে। এর ফলে ত্বকে বয়সের ছাপ পড়তে পারেনা। এছাড়া আমন্ড অয়েলের মধ্যে বিদ্যমান কোলাজেন উপাদান ত্বকে বলীরেখা পড়তে বাধা দেয়। চোখের চতুর্দিকে ডার্ক সার্কলস ঠেকাতেও এটা দারুণ কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

ব্যবহার প্রণালীঃ প্রথমে একটি পাত্রে দুই চামুচ আমন্ড অয়েল নিয়ে নিন। তারপর গোসলের আধাঘন্টা আগে আপনার কালো হয়ে যাওয়া গলা, ঘাড়ে ও পিঠের কালচে স্থান সমূহে ভাল করে ম্যাসেজ করে আমন্ড অয়েল ব্যবহার করুন। তারপর গোসলের সময় তেলটি ধুয়ে পরিস্কার করে ফেলুন।

অনেকের কাছে ত্বকে কোন প্রকার তেলের ব্যবহার অস্বস্তিকর মনে হতে পারে। তাই তারা এটা গোসলের আগে ব্যবহার করবেন। আর যদি এটা আপনার কোন অস্বস্তিকর মনে না হয় তাহলে ত্বকে শুষে যাওয়া পর্যন্ত রেখে দিতে পারেন। এভাবে নিয়মিত আমন্ড অয়েল পুরো একমাস ব্যবহার করলে আপনার গলা ও ঘাড়ের সমস্ত কালো দাগ ছোপ দূর হয়ে যাবে।

৫। টক দইঃ টক দইয়ে রয়েছে বিভিন্ন রকম রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা। আর পুষ্টিগুণ বলতে এই টক দইয়ে রয়েছে প্রোটিন, ফ্যাট, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, ভিটামিন- এ, বি-৬, বি-১২ সহ নানা ধরনের পুষ্টিকর উপাদান। ত্বকের পোড়া ভাব সহ চামড়ায় বলীরেখার দাগ ও কালচে দাগ দূর করতে সাদা টকদই সুন্দর কাজ করে। এই টক দই আপনি ঘরে বানিয়ে ব্যাবহার করলে ভাল ফল পাবেন। আর চাইলে এর সাথে সামান্য খাঁটি মধু মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

ব্যবহার প্রণালীঃ প্রথমে দুই চামুচ টক দইয়ের সাথে এক চামুচ খাঁটি মধু মিশিয়ে ভাল করে একটা মিশ্রণ তৈরি করে নিন। তারপর এই মিশ্রণটি আপনার গলা ও ঘাড়ে ভাল করে ম্যাসেজ করে বিশ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। তারপর পরিস্কার পানি দিয়ে ভালকরে ধুয়ে ফেলুন। এই নিয়মে দিনে একবার করে সপ্তাহে তিন বার করে পুরো এক মাস ব্যবহার করুন। তাহলে আপনার গলা ও ঘাড় থেকে চিরদিনের জন্য সমস্ত কালো দাগ দূর হয়ে যাবে।

৬। আলু রসঃ ত্বকে আলুর রস ব্যবহার করলে খুব দ্রুত মুখের ব্রন ও ত্বক পরিস্কার করে ত্বকের যে কোন কালো দাগ দূর করে আপনার ত্বক কে উজ্জ্বল করে তুলবে। তাছাড়া আলুর রসে রয়েছে অসংখ্য পুষ্টিগুণ। যেমন- পটাশিয়াম, লৌহ, জিংক, ভিটামিন- সি, ভিটামিন- কে ও ক্যালসিয়াম সহ ইত্যাদি ভিটামিন। তাই গলা ও ঘাড়ের কালো দাগ তুলতে আলুর রস ব্যাবহার করে দেখুন খুব চমৎকার একটা রেজাল্ট পাবেন।

ব্যবহার প্রণালীঃ প্রথমে দুই চামুচ আলুর রসের সাথে এক চামুচ লেবুর রস মিশিয়ে ভাল করে একটা মিশ্রণ বানিয়ে নিন। তারপর এই মিশ্রণটি আপনার গলা, ঘাড়ে ও পিঠে ভাল করে ম্যাসেজ করে পনেরো থেকে বিশ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। কিছুক্ষণ পর-পর আঙ্গুল দিয়ে ম্যাসেজ করে দিন। তারপর পরিস্কার পানি দিয়ে ভালকরে ধুয়ে ফেলুন। এই নিয়মে দিনে একবার করে সপ্তাহে দুই থেকে তিন বার এবং এভাবে পুরো এক মাস ব্যবহার করুন। তাহলে আপনার ঘাড়, গলা ও পিঠের সমস্ত কালো দাগ দূর হয়ে অনেক সুন্দর আর উজ্জ্বল দেখাবে।

উপরের সবগুলো উপাদানই খুব কার্যকর এবং উপকারী। এগুলো একেক জনের কাছে একেকটা টিপস পছন্দ হতে পারে। তাই সবগুলো উপাদান একত্রে আপনাকে ব্যবহার করতে হবে না। এগুলোর প্রত্যেকটি টিপস আপনি একবার করে বাসায় নিজে ট্রাই করে দেখতে পারেন।

আর যেই টিপস বা উপকরণটি আপনি ব্যবহারে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন সেটা দিয়ে নিয়মিত ব্যবহার করতে পারেন। তাহলে আপনার গলায় ও ঘাড়ের কালো দাগ সমস্ত দূর হয়ে আপনার ত্বক হয়ে উঠবে আরও সুন্দর, আরও ফর্সা এবং আরও উজ্জ্বল।

Google search engine
পূর্ববর্তী আর্টিকেলজন্ম নিবন্ধন সংশোধন করুন ঘরে বসে অনলাইনে
পরবর্তী আর্টিকেলওজন কমানোর উপায় জেনে নিন। Technic of weight loss tips

১টি মন্তব্য

একটি মন্তব্য করুন

এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহপূর্বক আপনার নাম লিখুন